২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি
www.motherlandnewsbd.com

নৌকার পক্ষে প্রচারণায় মরিয়া যুবলীগ নেতা ময়না, সাধারণ মানুষের ভরসা এবার নৌকা

প্রকাশিত: মাহবুব আলম জুয়েল

সোহেল রানা, (ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি রাজশাহী) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরীর পক্ষে প্রচারণায় এগিয়ে কলমা ইউনিয়ন। কলমা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও তানোর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না নৌকার বিজয় ঘটাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন।তিনি নির্বাচনী মাঠে দিনরাত পরিশ্রম যাচ্ছেন। পাড়ায় পাড়ায়, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে, নৌকার পক্ষে গণসংযোগ করছেন। বিভিন্ন সময় ব্যাপক পরিমাণ মোটরসাইকেল নিয়ে শোডাউন দিয়ে জনগণের মাঝে নৌকার বার্তা পৌঁছে দিচ্ছেন।

নির্বাচনী বৈঠকে তিনি বলেন, ১০ বছরে যে উন্নয়ন আমরা করেছি সেটা শুধু আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরীর জন্য করতে পেরেছি। তানোর গোদাগাড়ীর মানুষের সকল ক্ষেত্রে মিশে আছে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন। লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না বলেন, আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী আমাদের পোড়ামাটির তিনি সারাক্ষণ মানুষের ভালো মন্দ নিয়ে ভাবেন। তিনি মিথ্যা কথা বলেন না। মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেন না। ১০ বছরে তিনি শেখ হাসিনার প্রতিনিধি হিসেবে শিক্ষা, রাস্তা, কালভার্ট, বিদ্যুৎ, মাদক নির্মুল, কৃষকের মাঝে সার, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, গরীবের মাঝে ১০ টাকা কেজি চাল ইত্যাদি বিষয়ে যথাসাধ্য উন্নয়ন করেছেন।
শিশুদের মাঝে সময়মতো বই,গরিবদের জন্য কর্মস্থান, সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য বেতন বৃদ্ধি আওয়ামী লীগ সরকারের বড় অবদান।
পদ্মা সেতু নির্মাণ, যা এর আগে কোনও সরকার কোনদিন ভাবেনি যে নিজের দেশের টাকা দিয়ে এত বড় একটি সেতু করা সম্ভব। তাই দেশের উন্নয়নের জন্য নৌকা মার্কায় ভোট দিতে সবার কাছে আহ্বান জানান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না ।

এদিকে তানোর তালন্দ বাজারের এক সাধারণ কৃষকে নির্বাচন বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার থাকলে আমরা ভালোই থাকি। দেশ এখন যেভাবে চলছে তাতে আর দশ বছর এভাবে চললে অভাব কি জিনিস তা মানুষ ভুলে যাবে। তাই আমরা নৌকায় তথা ফারুক চৌধুরীকে আবারো ভোট দিব।

তানোর পৌর যুবলীগের সভাপতি রাজীব সরকার হিরো বলেন, তানোরের মানুষ শান্তিতে বাস করতে চাই। ১০ বছর যে শান্তি মানুষের ভিতরে আছে তা হারিয়ে দিতে চায় না। বিভিন্ন অপরাধের সাজাপ্রাপ্ত আসামী আমিনুল হককে তানোরের মানুষ আর চায়না। তিনি যতদিন তানোর গোদাগাড়ীতে মন্ত্রী ছিলেন আলহাজ্ব ফারুক চৌধুরী যদি তার চার ভাগের এক ভাগ সময় পেতেন তাহলে তানোর গোদাগাড়ীর মানুষের আর কোন চাওয়া থাকত না। ফারুক চৌধুরী সারাক্ষণ তানোর গোদাগাড়ী মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকতে চান। তাই সবাই নিজের ভালোর জন্য নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

প্রকাশিত: মাহবুব আলম জুয়েল (সম্পাদক)

Share Button


     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ