৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
www.motherlandnewsbd.com

নওগাঁর মহাদেবপুরে দই খেয়ে একই পরিবারের ৩ জনের রহস্যজনক মৃত্যু! মাদারল‍্যান্ড নিউজ

মাহবুবুজ্জামান সেতু,নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চকজোতহরী গ্রামে স্বামী-স্ত্রী ও তাদের একমাত্র শিশু সন্তানের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। শনিবার দুপুরে নিহতদের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহতরা হলেন, চকজোতহরী গ্রামের বাসিন্দা অজিত মন্ডলের ছেলে অর্জুন কুমার (৩৫) তার স্ত্রী তিথী রানী (২৩) ও তাদের একমাত্র আড়াই বছরের ছেলে সন্তান অরন্য কুমার মন্ডল।

প্রতিবেশীরা জানান, শুক্রবার দিবাগত রাত ১০ টার দিকে আর্তনাদ শুনে অামরা ছুটে গিয়ে ঘরের মধ্যে অর্জুন, তিথী ও অরন্যকে ছটফট করতে দেখতে পাই। পরবর্তিতে তারা সকলেই খিচুনি অার বমি করতে থাকে। অার বলে যে অামাদের এসব কি খাওয়ালো। অামাদের এমন হচ্ছে কেনো? অামাদেরকে বিষ খাওয়ানো হয়েছে।অামাদেরকে তোমরা বাঁচাও। অামরা বাঁচতে চাই। দ্রুত ডাক্তার দেখান অামাদেরকে তাছাড়া অামরা সকলে মরে যাবো। অামাদেরকে বাঁচাও।

সেখান থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়ার পথেই তিথী রানীর মৃত্যু হয়।

নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যায় শিশু অরন্য ওরফে অর্নব।

অর্জুনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনিও মারা যান।

প্রতিবেশীরা জানান, ইটের তৈরী একতালা বাড়ির দুটি ইউনিটের একটিতে ছিলো অর্জুনের পরিবার।

অন্যটিতে ছোট ভাই অসিমের পরিবার বসবাস করতো।

ঘটনার পর থেকে অসিম পরিবারের অন্যদের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে ধারনা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহ থেকে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

খাদ্যে বিষ মিশিয়ে অথবা বিষাক্ত ট্যাবলেট খাওয়ানোর কারনে তাদের মৃত্য হতে পারে।

এদিকে রহস্যজনক এ মুত্যূকে হত্যাকান্ড দাবী করেছে নিহত তিথি রানীর স্বজনরা।

তিথীর মা যমুনা রানী অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে পারিবারিক কলহ চলে আসছিলো অর্জুনের পরিবারে।

জমিজমা নিয়ে ছোট ভাই অসিমের সাথে অর্জুনের দ্বন্দ্ব ছিল।

এ নিয়ে প্রায়ই ঝগড়া ঝাটি হতো তাদের মধ্যে। এরই জেরে দইয়ের সাথে বা অন্যান্য খাবারের সাথে বিষ খাইয়ে হত্যা করা হয়েছে।

দোষিদের শাস্তি চেয়ে মামলা করবেন জানান তিনি।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহা: আশরাফুল ইসলাম জানান, রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে পুলিশ।

নিহতদের পরিবারের অন্য সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ, আলামত ও ময়না তদন্ত রিপোর্টের ভিত্তিতে দ্রুতই রহস্য উদঘাটন করা হবে।

হত্যাকান্ডের ঘটনা হয়ে থাকলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে জানান তিনি।

এব্যাপারে জানতে চাইলে, মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে অাজ সন্ধ্যায় তাদের সজনরা ধর্মীয় নিয়ম অনুযায়ী শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছে। তবে এর প্রকৃত রহস্য উৎঘাটনে তদন্ত চলছে। #

Share Button


     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ