৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৬ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
www.motherlandnewsbd.com

তানোরে প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে ধানের শীষ

নিজেস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তানোর গোদাগাড়ীর ধানের শীষের প্রার্থী প্রচার-প্রচারণায় দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে। তাদের প্রচার-প্রচারণা দেখে মনে হচ্ছে মাঠ তাদেরই দখলে রয়েছে।
অপরদিকে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা কোণঠাসা হয়ে ঘরের কোনায় সময় কাটাচ্ছে। কিন্তু নৌকার প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরী প্রতিনিয়ত মাঠে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। লক্ষ্য করা যাচ্ছে সেভেন স্টার নামে দলটি ফারুক চৌধুরীর সাথে এক হয়ে কাজ করবে বলে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলেও তাদেরকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে মাঠে দেখা যাচ্ছেনা না। তারা মুখে এক হয়েছি বললেও নৌকার পক্ষে জোরালো ভূমিকা রাখতে দেখা যাচ্ছে না তাদেরকে। এতে করে আওয়ামী লীগের তৃণমূলের কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করছে। তারা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতা থাকা অবস্থায় নেতারা অনেক সুযোগ সুবিধা ভোগ করেছে, অথচ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করছে না তারা। এ সময় বসে থাকার সময় নয়। এখন কোন নেতা দলকে কত ভালোবাসে সেটার পরীক্ষা দেওয়ার সময়। সুধী সমাজ মনে করছেন একাদশ জাতীয় নির্বাচন  গণতন্ত্রের  অধিকার প্রচেষ্টার নির্বাচন। তাই যে যা দল করে  সকল বিভেদ ভুলে গিয়ে দলের হয়ে  কাজ করা উচিত। তারা বলছেন, শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়েও যদি আওয়ামী লীগ নেতারা মাঠে সঠিকভাবে কাজ না করেন সেটি তাদের জন্য অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের বিষয়। তানোর পৌরসভাতেও লক্ষ্য করা যায় আওয়ামী লীগ নেতাদের চেয়ে বি এন পির নেতারা প্রচার প্রচারণায় এগিয়ে। বি এন পির নেতারা অতি আনন্দের সহিত কাজ করে যাচ্ছে। অথচ আওয়ামী লীগ নেতাদের সেভাবে দেখা যাচ্ছেনা। ধানের শীষ প্রতীকের কর্মীদের হ্যান্ড মাইক ব্যবহার করে ভোট করতে দেখা যাচ্ছে যা একটি ব্যতিক্রম পন্থা।
তানোর পৌরসভার মেয়র ও থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রতিনিয়ত তার কর্মীদের নিয়ে একনিষ্ঠ ভাবে ধানের শীষের পক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। অপরদিকে তানোর থানা যুবলীগের সভাপতি ও কলমা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়নাকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে নৌকার পক্ষে মাঠে দেখা গেলেও, তানোর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র গোলাম রাব্বানীকে একনিষ্ঠ ভাবে মাঠে দেখা যাচ্ছে না। আওয়ামী লীগ ভক্ত কর্মীরা বলছেন, কোনো নেতাকেই এ সময় ঘরে বসে থাকা ঠিক নয়। ব্যাক্তি কোন্দলকে ভুলে গিয়ে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে সকলকে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে কাজ করা উচিত। তবে যুবলীগ নেতা রাজীব সরকার হিরোকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের মাঠ দিন দিন চাঙ্গা হচ্ছে। এখন যে অবস্থা রয়েছে কিছুদিন পরে সে অবস্থা থাকবে না ইনশাল্লাহ। তানোর গোদাগাড়ীর মানুষেরা আবারো নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে ওমর ফারুক চৌধুরীকে সংসদ সদস্য করবে। আমরাই আবারো বিজয়ী হব তিনি এ আশাবাদ ব‍্যক্ত করেন।

প্রকাশিত: মাহবুব আলম জুয়েল,(সম্পাদক)

Share Button


     এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ